সোমবার ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ রাত ৯:১০

শরীয়তপুরে যানজট ও সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে ট্রাফিক পুলিশের পরিবহন অভিযান

অক্টোবর ১, ২০২২            

নুরুজ্জামান শেখ শরীয়তপুরঃ

বাংলাদেশের সড়ক পথে সড়ক দুর্ঘটনা যেন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। খবরের পাতা খুললেই দেখা যায় প্রতিদিন দেশের কোথাও না কোথাও সড়ক দুর্ঘটনায় চলে যাচ্ছে তাজা প্রাণ আবার কেউ কেউ সারা জীবনের জন্য পঙ্গুত্ব বরণ করছে। পরিবার হারাচ্ছে তাদের স্বজনদের। ২০২২ সালের পরিসংখ্যানে জানা গেছে ২০২১ সালে সড়কপথে পাঁচ হাজার ছয়শ ২৯ টি দুর্ঘটনা ঘটে এতে প্রাণ হারায় ৭ হাজার ৮০৯ জন আহত হয় ৯ হাজার ৩৯ জন। কোন ভাবে থামানো যাচ্ছে না সড়কপথে সড়ক দুর্ঘটনা। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর থেকেই শরীয়তপুরে বেড়েছে যানবাহন যানজট মাঝেমধ্যে ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা।

শরীয়তপুর সড়কপথে বেড়েছে অবৈধ ব্যাটারি চালিত অটো গাড়ি, অটো ভ্যান, অটোরিকশা, শ্যালো ইঞ্জিন চালিত ট্রলি, নসিমন ইট বালু টানার মহেন্দ্র। তথ্যসূত্রে জানা গেছে এসব অবৈধ গাড়ির চালকদের নেই কোন চালক লাইসেন্স, তাদের নেই কোন সড়ক পথ সম্পর্কে অভিজ্ঞতা, এজন্যই ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা। দুর্ঘটনার আরেকটি বড় কারণ বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালানো, অত্যন্ত গুতি, যত্রতত্র স্থানে যাত্রী ওঠানামা। সম্প্রতি শরীয়তপুরে যোগদানরত পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল হক এর নির্দেশনায় সড়কপথে যানজট ও দুর্ঘটনা কমাতে ট্রাফিক পুলিশ এর মাধ্যমে পরিবহন অভিযান কার্যক্রম চালু করেন। পহেলা অক্টোবর ২০২২ সকাল ৯ টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত শরীয়তপুর সদর পালং উত্তর বাজার প্রধান সড়কে ট্রাফিক পুলিশ পরিবহন অভিযান কার্যক্রম করেন। ট্রাফিক পুলিশ পরিবহন অভিযান কার্যক্রম পরিচালনায় ছিলেন জেলার ট্রাফিক ইনচার্জ মোঃ নিজাম হোসেন, ট্রাফিক সার্জেন্ট মেহেদী, ট্রাফিক সার্জেন্ট মুজাহিদ এবং পালং মডেল থানার এসআই জালাল এবং ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল।

ট্রাফিক সার্জেন মুজাহিদ গণমাধ্যমকে বলেন পরিবহন অভিযান পরিচালনাকালে মোটরসাইকেল সহ বিভিন্ন গাড়িকে ১৫টি মামলা দিয়েছি এবং বিভিন্ন অবৈধ ১২ টি গাড়ী আটক করেছি। সড়কপথে যানজট ও দুর্ঘটনা কমাতে আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। জেলা টি,আই প্রশাসন মোঃ নিজাম হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন মামলা জরিমানা এটা আমাদের মূল উদ্দেশ্য না, আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে জনসাধারণ ও গাড়ি চালকদেরকে সচেতন করা। সুযোগ্য জেলা পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল হক স্যারের একটাই উদ্দেশ্য সড়কপথে যানজট ও দুর্ঘটনা কামাতে হবে। রাস্তায় ফিটনেসবিহীন, অবৈধ গাড়ি, রেজিস্ট্রেশন বিহীন গাড়ি, হেলমেট বিহীন ও লাইসেন্সবিহীন গাড়ি কেউ চালাতে পারবে না। যাহারা সড়কপথে আইন অমান্য করবে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।

 

© Alright Reserved 2021, Hridoye Shariatpur