শনিবার ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ রাত ৩:১১

গোসাইরহাটে ভুয়া দন্ত চিকিৎসকের কারাদণ্ড

আগস্ট ২৮, ২০২৩            

গোসাইরহাট প্রতিনিধিঃ

জীবনে কখনো চিকিৎসা শাস্ত্রে পড়াশোনা করেননি। কিন্তু নিজেকে দাঁত ও মুখগহ্বরের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে ক্লিনিক খুলে বহুদিন ধরে প্রতারণা করে আসছেন মা ডেন্টাল ক্লিনিকের ভুয়া এই চিকিৎসক মো.কামাল হোসেন(৪২) তিনি সামন্তসার ইউনিয়নের লাকাচুয়া গ্রামের মৃত আলী আহম্মদ তালুকদারের ছেলে, তিনি বহুদিন যাবত দাশের জঙ্গল বাজারে নিজেকে দাঁতের ডাক্তার হিসেবে পরিচয় দিয়ে নিজেই যন্ত্রপাতী সংগ্রহ করে দাঁতের অপারেশন করেন এতে বহুলোক আর্থিকভাবে প্রতারিত হছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। যা পুরোপুরি বেআইনী।

রবিবার (২৭-আগস্ট)দুপুর ২টার দিকে শরীয়তপুর জেলার গোসাইরহাট উপজেলার দাশের জঙ্গল বাজারে ডেন্টাল ক্লিনিকে অভিযান চালিয়ে ভুঁয়া ডাক্তার কামাল হোসেন কে আটক করে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এই ভুয়া চিকিৎসককে ১০দিন কারাদণ্ড ও ৫০০ শ’ টাকা জরিমানা প্রদান করেন উপজেলা প্রশাসন।

অভিযান পরিচালনাকারী উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিট্রেট (ইউএনও) কাফী বিন কবির জানান, মা ডেন্টাল ক্লিনিকের মালিক মো: কামাল হোসেন নিজেকে দন্ত চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দেন এবং তার নিজেকে ডা: পদবি হিসেবে ডেন্টাল সার্জন উল্লেখ করে প্রতারনা করে আসছেন । কিন্তু তিনি বিএমডিসি এর কোন রেজিস্ট্রেশন দেখাতে পারেননি। তাই মেডিক্যাল এবং ডেন্টাল কাউন্সিল আইন, ২০১০ এর ২৯(১) ধারা লঙ্ঘন করায় ২৯(২) ধারা অনুসারে ১০দিন কারাদণ্ড ও ৫০০টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এই অভিযানে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সুজন দাশ গুপ্ত উপস্থিত ছিলেন।

এঅভিযানে উপস্থিত থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা.হাফিজুর রহমনা, এবং সহকারী সার্জন ডা.আবেদুর রহমান নিশাত জানান, গোসাইরহাটে কথিত ডাক্তার মো. কামাল হোসেনকে ডেন্টালের ভুঁয়া ডাক্তার হিসেবে শনাক্ত করেন। পরে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আসামিকে ৫ ‘শ টাকা জরিমানা ও ১০ দিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

© Alright Reserved 2021, Hridoye Shariatpur