সোমবার ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ রাত ৯:১২

আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল আউয়াল গোসাইরহাট পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত

জুলাই ১৭, ২০২৩            

মোহাম্মদ জামাল মল্লিক, শরীয়তপুরঃ

শরীয়তপুরের গোসাইরহাট পৌরসভার প্রথম  মেয়র নির্বাচিত হলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল আউয়াল সরদার। তিনি নারিকেল গাছ প্রতীকে ৩৬৭২ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামীলীগের মনোনীত জাকির হোসেন দুলাল নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ২৯৯৫ ভোট। সোমবার (১৭ জুলাই) রাত ৯টার দিকে শরীয়তপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও  গোসাইরহাট পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. সোহেল সামাদ নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেন।

নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে গিয়ে নির্বাচন করায় আব্দুল আউয়ালকে গোসাইরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়।  কম্পিউটার পতিকে বিএনপি নেতা মোঃ জিয়া জামাদ্দার ২৯১৫ ভোট পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন ।

মোবাইল ফোন প্রতীকে ২৬৩৮ ভোট পেয়ে চতুর্থ স্থানে আছেন আওয়ামী লীগের আরেক বিদ্রোহী মতিউর রহমান মিন্টু বেপারী।

এ নির্বাচনে মেয়র পদে সাতজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও মাঠে সক্রিয় ছিলেন পাঁচ জন। এছাড়া ৫১ জন কাউন্সিলর ও ১৪ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পান জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য জাকির হোসেন দুলাল।

দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে নৌকার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেন দলের চারজন বিদ্রোহী প্রার্থী। এই চার বিদ্রোহী হলেন,  উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব দেওয়ান শাজাহান (জগ), সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল সরদার (নারিকেল গাছ), পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান মিন্টু বেপারী (মোবাইল ফোন) ও সাধারণ সম্পাদক আল আমিন সিকদার (হেলমেট)। এরমধ্যে আল আমিন শিকদার নির্বাচনে নিষ্ক্রিয় ছিলেন।

 

এছাড়া গোসাইরহাট উপজেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক পদ থেকে পদত্যাগ করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন মো. জিয়াউর রহমান (জিয়া জমাদ্দার) (কম্পিউটার)।

 

© Alright Reserved 2021, Hridoye Shariatpur